ঢাকা ১০:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম...

জাতিসংঘে স্থায়ী যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস, যা বলল ইসরাইল

জাতিসংঘের নিরপত্তা পরিষদে দীর্ঘ প্রতিজ্ঞার পর গাজায় স্থায়ী যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস হলেও তা মেনে নিতে আগ্রহী নয় দখলদার  ইসরায়েল। খবর ‍সিএনএনের ।

মঙ্গলবার (১১ মে) সিএনএন এক বিবৃতিতে জানায়,জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরাইলি প্রতিনিধি রুট শাপির বেন-নাফতালি  জানিয়েছে, ‘গাজা যাতে ইসরাইলের জন্য হুমকি হয়ে উঠতে না পারে, সেই লক্ষ্য আমরা অর্জন করতে চাই। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, গাজায় ইসরায়েলি বাহিনী তাদের অভিযান চালিয়ে যাবে। হামাসকে পুরষ্কৃত করা হয় এমন কোন অর্থহীন আলোচনায় তারা অংশ নিবো না।

তিনি আরও বলেন,‘ইসরাইল তার নীতির ওপর অটল রয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত সকল জিম্মি উদ্ধার না হবে এবং হামাসের সামরিক ক্ষমতা বিলুপ্ত না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা যুদ্ধ চালিয়ে যাব। যুদ্ধের প্রথম দিন থেকে এটিই আমাদের লক্ষ্য ছিল।’

 গাজায় যুদ্ধবিরতি নিয়ে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত ৩১ মে গাজায় যুদ্ধবিরতি সংক্রান্ত তিন ধাপের একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেছিলেন। বাইডেনের এই প্রস্তাবে তিনটি পর্যায় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

প্রথম ধাপে বন্দি বিনিময়ের পাশাপাশি স্বল্পমেয়াদি যুদ্ধবিরতি হবে। দ্বিতীয় ধাপে ‘শত্রুতার স্থায়ীভাবে অবসান’ এবং গাজা থেকে ইসরায়েলি সেনাদের পুরোপুরি প্রত্যাহারের কথা বলা হয়েছে। তৃতীয় ধাপে যুদ্ধের কারণে ব্যাপকভাবে ধ্বংস হওয়া গাজার জন্য বহু বছরের পুনর্গঠন পরিকল্পনা রয়েছে।

উক্ত প্রস্তাব পাসে জাতিসংঘের নিরপত্তা পরিষদে একটি ভোটাভোটি অনুষ্ঠিত হয়। নিরপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্যের মধ্যে ১৪ সদস্যই এ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয়। শুধু রাশিয়া ভোট দানে বিরত ছিল।

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

জনপ্রিয় সংবাদ

জাতিসংঘে স্থায়ী যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস, যা বলল ইসরাইল

আপডেট সময় : ১০:৪৬:৪৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

জাতিসংঘের নিরপত্তা পরিষদে দীর্ঘ প্রতিজ্ঞার পর গাজায় স্থায়ী যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস হলেও তা মেনে নিতে আগ্রহী নয় দখলদার  ইসরায়েল। খবর ‍সিএনএনের ।

মঙ্গলবার (১১ মে) সিএনএন এক বিবৃতিতে জানায়,জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরাইলি প্রতিনিধি রুট শাপির বেন-নাফতালি  জানিয়েছে, ‘গাজা যাতে ইসরাইলের জন্য হুমকি হয়ে উঠতে না পারে, সেই লক্ষ্য আমরা অর্জন করতে চাই। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, গাজায় ইসরায়েলি বাহিনী তাদের অভিযান চালিয়ে যাবে। হামাসকে পুরষ্কৃত করা হয় এমন কোন অর্থহীন আলোচনায় তারা অংশ নিবো না।

তিনি আরও বলেন,‘ইসরাইল তার নীতির ওপর অটল রয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত সকল জিম্মি উদ্ধার না হবে এবং হামাসের সামরিক ক্ষমতা বিলুপ্ত না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা যুদ্ধ চালিয়ে যাব। যুদ্ধের প্রথম দিন থেকে এটিই আমাদের লক্ষ্য ছিল।’

 গাজায় যুদ্ধবিরতি নিয়ে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত ৩১ মে গাজায় যুদ্ধবিরতি সংক্রান্ত তিন ধাপের একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেছিলেন। বাইডেনের এই প্রস্তাবে তিনটি পর্যায় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

প্রথম ধাপে বন্দি বিনিময়ের পাশাপাশি স্বল্পমেয়াদি যুদ্ধবিরতি হবে। দ্বিতীয় ধাপে ‘শত্রুতার স্থায়ীভাবে অবসান’ এবং গাজা থেকে ইসরায়েলি সেনাদের পুরোপুরি প্রত্যাহারের কথা বলা হয়েছে। তৃতীয় ধাপে যুদ্ধের কারণে ব্যাপকভাবে ধ্বংস হওয়া গাজার জন্য বহু বছরের পুনর্গঠন পরিকল্পনা রয়েছে।

উক্ত প্রস্তাব পাসে জাতিসংঘের নিরপত্তা পরিষদে একটি ভোটাভোটি অনুষ্ঠিত হয়। নিরপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্যের মধ্যে ১৪ সদস্যই এ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয়। শুধু রাশিয়া ভোট দানে বিরত ছিল।