ঢাকা ০৮:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম...

বৌদ্ধ মঠে জান্তার বিমান হামলায় নিহত ১৩, আহত ৪০

মিয়ানমারের সাগাইং টাউনশিপে একটি বৌদ্ধ মঠে জান্তা বাহিনীর বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন ১৩ জন। আহত হয়েছেন আরও ৪০ জন।

সোমবার (১০ জুন) মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা ইরাবতী এ খবর জানিয়েছে। শনিবার (০৮ জুন) এই হামলা চালানো হয় বলে স্থানীয়রা দাবি করেছেন। হামলায় তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ১৩ জন নিহত ও প্রায় ৪০ জন আহত হয়েছেন।

থাবিয়ায় থার নামের গ্রামের এই বৌদ্ধ মঠটি অবস্থিত। গ্রামটির বাসিন্দারা বলেছেন, পিপিল’স ডিফেন্স টিম, পিপল’স অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ও পিপল’স সিকিউরিটি টিম সেখানে বৈঠক করার সময় মঠে বোমা ফেলা হয়েছে।

রবিবার এক বাসিন্দা বলেছেন, ‘তারা প্রায় ৫০০ পাউন্ডের তিনটি বোমা ফেলেছে। কয়েকজনের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। নিহতদের মধ্যে মঠে আসা প্রবীণরাও রয়েছেন। আরও অনেকে আহত হয়েছেন। আমাদের কাছে থাকা সাধারণ ওষুধ দিয়ে তাদের চিকিৎসা করতে হিমশিম খাচ্ছি।’

অপর এক বাসিন্দা ইরাবতীকে বলেছেন, ‘নিহতদের মধ্যে মঠের কর্তা, পঙ্গু উপাসক এবং মঠে আশ্রয় নেওয়া এক ব্যক্তি ও তার দুই ছেলে রয়েছেন। পাশের গ্রামের নিহতদের আমরা এখনও শনাক্ত করতে পারিনি।’

উল্লেখ্য, ‘গত ৩ জুন সাগাইংয়ের মিঙ্গিন টাউনশিপে জান্তার বিমান হামরায় অন্তত ২৭ জন নিহত হয়েছেন।’

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

জনপ্রিয় সংবাদ

বৌদ্ধ মঠে জান্তার বিমান হামলায় নিহত ১৩, আহত ৪০

আপডেট সময় : ০৮:০৫:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪

মিয়ানমারের সাগাইং টাউনশিপে একটি বৌদ্ধ মঠে জান্তা বাহিনীর বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন ১৩ জন। আহত হয়েছেন আরও ৪০ জন।

সোমবার (১০ জুন) মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা ইরাবতী এ খবর জানিয়েছে। শনিবার (০৮ জুন) এই হামলা চালানো হয় বলে স্থানীয়রা দাবি করেছেন। হামলায় তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ১৩ জন নিহত ও প্রায় ৪০ জন আহত হয়েছেন।

থাবিয়ায় থার নামের গ্রামের এই বৌদ্ধ মঠটি অবস্থিত। গ্রামটির বাসিন্দারা বলেছেন, পিপিল’স ডিফেন্স টিম, পিপল’স অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ও পিপল’স সিকিউরিটি টিম সেখানে বৈঠক করার সময় মঠে বোমা ফেলা হয়েছে।

রবিবার এক বাসিন্দা বলেছেন, ‘তারা প্রায় ৫০০ পাউন্ডের তিনটি বোমা ফেলেছে। কয়েকজনের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। নিহতদের মধ্যে মঠে আসা প্রবীণরাও রয়েছেন। আরও অনেকে আহত হয়েছেন। আমাদের কাছে থাকা সাধারণ ওষুধ দিয়ে তাদের চিকিৎসা করতে হিমশিম খাচ্ছি।’

অপর এক বাসিন্দা ইরাবতীকে বলেছেন, ‘নিহতদের মধ্যে মঠের কর্তা, পঙ্গু উপাসক এবং মঠে আশ্রয় নেওয়া এক ব্যক্তি ও তার দুই ছেলে রয়েছেন। পাশের গ্রামের নিহতদের আমরা এখনও শনাক্ত করতে পারিনি।’

উল্লেখ্য, ‘গত ৩ জুন সাগাইংয়ের মিঙ্গিন টাউনশিপে জান্তার বিমান হামরায় অন্তত ২৭ জন নিহত হয়েছেন।’