ঢাকা ০৮:৪৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম...

সিলেটে কমছে পানি, বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা ভারী বৃষ্টিপাত সিলেট অঞ্চলে সৃষ্ট বন্যার কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

মঙ্গবার (০৪ জুন) দুপুরে সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক রঞ্জন দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রঞ্জন দাশ জানান, ‘সিলেটের বেশ কয়েকটি নদ-নদীর পানি বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে নামতে শুরু করেছে। যদিও সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর তিনটি পয়েন্টের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এরমধ্যে কানাইঘাটের সুরমা পয়েন্টের পানির বিপদসীমা ১২ দশমিক ৭৫ হলেও তা ১৩ দশমিক ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। কুশিয়ারার অমলশিদ পয়েন্টে বর্তমানে ১৫ দশমিক ৬৭ সেন্টিমিটার দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। যা বিপদসীমার ২৭ সেন্টিমিটার ওপরে। ফেঞ্চুগঞ্জ এলাকার কুশিয়ারা পয়েন্টে পানির বিপদসীমা ৯ দশমিক ৪৫ সেন্টিমিটার থাকলেও বর্তমানে বিপদসীমার ২৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শুধু সুরমার সিলেট পয়েন্টে আজ ভোর থেকে পানি বিপদসীমার ৭ সেন্টিমিটার নিচে এসেছে।’

এদিকে সিলেট আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শাহ মোহাম্মদ সজীব হোসাইন জানান, ‘সিলেটে গতকাল বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৫২ দশমিক ২ মিলিমিটার। আর আজ সকাল ৬টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত গড় বৃষ্টিপাত হয়েছে ২৯ দশমিক ৬ মিলিমিটার। এ ছাড়া দিনের অন্যান্য সময়ে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।’

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

জনপ্রিয় সংবাদ

সিলেটে কমছে পানি, বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

আপডেট সময় : ০৪:৫৮:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪

ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা ভারী বৃষ্টিপাত সিলেট অঞ্চলে সৃষ্ট বন্যার কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

মঙ্গবার (০৪ জুন) দুপুরে সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক রঞ্জন দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রঞ্জন দাশ জানান, ‘সিলেটের বেশ কয়েকটি নদ-নদীর পানি বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে নামতে শুরু করেছে। যদিও সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর তিনটি পয়েন্টের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এরমধ্যে কানাইঘাটের সুরমা পয়েন্টের পানির বিপদসীমা ১২ দশমিক ৭৫ হলেও তা ১৩ দশমিক ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। কুশিয়ারার অমলশিদ পয়েন্টে বর্তমানে ১৫ দশমিক ৬৭ সেন্টিমিটার দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। যা বিপদসীমার ২৭ সেন্টিমিটার ওপরে। ফেঞ্চুগঞ্জ এলাকার কুশিয়ারা পয়েন্টে পানির বিপদসীমা ৯ দশমিক ৪৫ সেন্টিমিটার থাকলেও বর্তমানে বিপদসীমার ২৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শুধু সুরমার সিলেট পয়েন্টে আজ ভোর থেকে পানি বিপদসীমার ৭ সেন্টিমিটার নিচে এসেছে।’

এদিকে সিলেট আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শাহ মোহাম্মদ সজীব হোসাইন জানান, ‘সিলেটে গতকাল বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৫২ দশমিক ২ মিলিমিটার। আর আজ সকাল ৬টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত গড় বৃষ্টিপাত হয়েছে ২৯ দশমিক ৬ মিলিমিটার। এ ছাড়া দিনের অন্যান্য সময়ে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।’